28.4 C
Rangpur City
Sunday, January 29, 2023

১০ তারিখের পর আঁতর মেখে মুজিব কোট পরা নেতাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না: দুলু

-- বিজ্ঞাপন --

আগামী ১০ ডিসেম্বরের পর আঁতর মেখে মুজিব কোট পরা নেতাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু। গতকাল সোমবার (২১ নভেম্বর) রাত ৮টায় লালমনিরহাট সদর উপজেলার বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিএনপি আয়োজিত এক জনসভায় এ মন্তব্য করেন তিনি। 

নিত্য দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, দুর্নীতি-দুঃশাসন, খুন, গুম, হত্যা ও ভোটাধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবিতে লালমনিরহাট সদর উপজেলা এ জনসভার আয়োজন করা হয়। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আসাদুল হাবিব দুলু বলেন, ‘খালেদা জিয়া বন্দী মানে আজ দেশের মানুষ বন্দী। গোটা দেশে হাহাকার উঠে গেছে। তাই দেশের মানুষ ফুসে উঠতে শুরু করেছে। যারা মুজিব কোট পরে আঁতর মেখে বেড়াচ্ছেন, আগামী ১০ (ডিসেম্বর) তারিখের পর তাদের আর খুঁজে পাওয়া যাবে না।’

-- বিজ্ঞাপন --

দুলু বলেন, ‘জেলখানায় খালেদা জিয়াকে রেখে অনেক উপহাস করছেন আওয়ামী লীগ নেতারা। যেদিন আওয়ামী লীগ নেতাদের পায়ে শিকল চড়বে সেদিন বুঝবে কত ধানে কত চাল। এরই মধ্যে ভাগ-বাঁটোয়ারা নিয়ে তাদের মারামারি শুরু হয়ে গেছে। দলীয় পদ নিয়ে আওয়ামী লীগ নেতারা চেয়ার দিয়ে মারামারি করছে। দেশের মানুষ বিনা ঘুষে চাকরি চায় স্বচ্ছন্দে চলাফেরা করতে চায়।’

এ সময় দুলু আরও বলেন, ‘রাতের আঁধারে ক্ষমতায় আসা এই আওয়ামী লীগ সরকারের শাসনামলে একজন খুনির জামিন হয়, ধর্ষণকারীর জামিন হয়, কিন্তু একটা দেশের তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার জামিন হয় না। বিচার বিভাগকে স্বাধীনের কথা বললেও তারা বিচার বিভাগকে নিজেদের আয়ত্তে রেখে হিংসার রাজত্ব কায়েম করছে।’ 

-- বিজ্ঞাপন --

তিনি আরও বলেন, ‘দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কশাঘাতে সাধারণ মানুষকে আজ নিষ্পেষিত। যেদিন তারেক রহমান দেশে আসবে সেদিন দেশে ভূমিকম্প হবে। যারা মুজিব কোট পরে আঁতর মেখে বেড়াচ্ছেন সেদিন তাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না। তারা দেশ ছেড়ে পালিয়ে যাবে। সারা দেশে দ্রব্যমূল্যের অসহনীয় ঊর্ধ্বগতির কারণে সারা দেশের মানুষ আজ জেগে উঠতে শুরু করেছে। এ জন্যই আওয়ামী লীগের মন্ত্রী, এমপিদের কথার সুর পাল্টাতে শুরু করেছে।’ 

লালমনিরহাট সদর উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক  একেএম মমিনুল হকের সভাপতিত্বে জনসভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলা, পৌর বিএনপির সভাপতি আফজাল হোসেন, জেলা যুবদলের সভাপতি আনিছুর রহমান ভিপি আনিছ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর সাত্তারসহ ৯টি ইউনিয়নের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা। 

-- বিজ্ঞাপন --

এর আগে বিকেল থেকে সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের হাজার হাজার নেতা-কর্মী উপস্থিত আসতে শুরু করেন এবং সন্ধ্যার মধ্যেই বড়বাড়ী শহীদ আবুল কাশেম উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ জনসমুদ্রে পরিণত হয়ে যায়। 

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,603FollowersFollow
854SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles