24.6 C
Rangpur City
Sunday, September 25, 2022
Royalti ad

সরকারের বারোটা বাজানোর জন্য দু-চারজন পুলিশই যথেষ্ট: ব্যারিস্টার সুমন

-- বিজ্ঞাপন --

আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফুটপাতের জন্য নিজের পার্টি অফিস ভেঙে দিয়েছেন। আর আপনারা তার (প্রধানমন্ত্রীর) নাম ব্যবহার করে মানুষের জায়গা দখল করছেন। সব দোষ সরকারের। সরকারের বারোটা বাজানোর জন্য আপনাদের মতো দু-চারজন পুলিশ অফিসারই যথেষ্ট।

সোমবার (২৫ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর কলাবাগানের তেঁতুলতলা মাঠে নাগরিক সমাবেশ এসে তিনি এ কথা বলেন।

-- বিজ্ঞাপন --

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, পুলিশ কীভাবে নিজেদের বদনাম কামায়? সরকারের কীভাবে বারোটা বাজায়? একটা বাচ্চাকে ধরে নিয়ে গেলো এখান থেকে। ১৩/১৪ বছরের বাচ্চাকে থানায় ভেতর ঢুকায় রাখলেন। তার বিরুদ্ধে কোনো ওয়ারেন্ট নেই। আপনারা কী জানেন না ওয়ারেন্ট হলেও তো একটা শিশু বাচ্চাকে নিতে পারেন না। অনেক প্রসিডিউর মেইনটেইন করতে হয়।

আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করবো- আশ্চার্যের বিষয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আজকে দেখলাম মিডিয়াতে আপনি নাকি বলেছেন, একটা সিদ্ধান্ত পুলিশের জায়গা রিপ্লেসের পর কাজ হবে। অথচ আপনার কথা না শুনে টানা কাজ করে যাচ্ছে। মানে একদিকে আপনি কথা বলছেন, আলোচনার পর সিদ্ধান্ত হবে; এখানে যে যার মতো করে কাজ করছে এবং থ্রেট দিচ্ছে।

-- বিজ্ঞাপন --

সুমন আরও বলেন, মাঠ দখল করে এমন অবস্থা করছেন ফুটবলে আমরা সবচেয়ে তলানিতে চলে গেছি, ১৮৮ তে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার অনুরোধ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কথাও এরা এখন শুনে না। আমি জানি না এরা কেন শুনে না। পাপের একটা সীমা আছে। সীমা লঙ্ঘন করা উচিত হবে না।

আমি আইজিপি বরাবর বলবো, আপনার তো সিভিক সেন্স অনেক স্ট্রং। আমি আপনাকে চিনি, আপনার পুলিশ যারা এ ধরনের কাজ করে তাদের কন্ট্রোল করেন। নইলে অনেক বেশি দেরি হয়ে যাবে। এত মানুষের দীর্ঘ নিঃশ্বাস নিয়ে আপনারা কোনোদিন সফল হতে পারবেন না।

-- বিজ্ঞাপন --

সুমন বলেন, এই সেই খেলার মাঠ যা দখল করে এখানে একটি পুলিশ স্টেশন হবে। যতটুকু জেনেছি বরাদ্দ দিয়েছে সিটি করপোরেশন। এই মাঠ বরাদ্দ নিয়েই স্থানীয় লোকজন আন্দোলন করেছিলেন এরজন্য একজন মা ও তার ছেলেকে পুলিশ ধরে নিয়ে যায়। যদিও ধরে নিয়ে গতকাল রাতেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

রাজধানীর কলাবাগানে তেঁতুলতলা মাঠ সংরক্ষণ করাসহ মাঠ রক্ষার আন্দোলনকর্মী সৈয়দা রত্না ও তার ছেলে ঈসা আব্দুল্লাহকে পুলিশি হয়রানির নিরপেক্ষ তদন্ত দাবিতে নাগরিক সমাবেশ করছেন সুশীল সমাজের নাগরিকেরা। সেই সমাবেশে এসে এসব কথা বলেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

প্রসঙ্গত, সৈয়দা রত্না উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সংঙ্গীত বিভাগের কর্মী। তেতুলতলা মাঠে থানা নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়ার পর থেকে স্থানীয় শিশু-কিশোরদের আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহণ করে আসার পাশাপাশি এ আন্দোলনের সমন্বয়কের দায়িত্বও পালন করছিলেন তিনি।

পান্থপথের উল্টো দিকের গলির পাশের খোলা জায়গাটিকে স্থানীয়রা চেনেন তেঁতুলতলা মাঠ নামে। জনাকীর্ণ নগরীর এই ছোট্ট মাঠে স্থানীয় শিশুরা খেলাধুলা করে। পাশাপাশি মাঠটিতে ঈদের নামাজ, জানাজাসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান হয়।

এর আগে গত ৩১ জানুয়ারি কলাবাগানের তেঁতুলতলা মাঠে খেলতে যাওয়া কয়েকটি শিশুর কান ধরে ওঠবস করায় পুলিশ। এর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে বাহিনীটির চার সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,629FollowersFollow
583SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles