31.4 C
Rangpur City
Monday, September 26, 2022
Royalti ad

শিলাবৃষ্টিতে আম-লিচুর গুটি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় দিনাজপুরের চাষিরা

-- বিজ্ঞাপন --

শিলাবৃষ্টিতে বিপুল পরিমাণ আম ও লিচুর গুটি নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে দিনাজপুরে। এতে করে ১০ শতাংশ আম ও লিচুর উৎপাদন হ্রাস পেতে পারে বলে জানিয়েছে কৃষি বিভাগ।

চৈত্র মাসের শেষভাগে দিনাজপুর জেলায় প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো উপজেলায় ঝড় ও শিলাবৃষ্টি হচ্ছে। শিলাবৃষ্টির কারণে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছে সদ্য বেড়ে ওঠা লিচু ও আম। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দিনাজপুরের বোচাগঞ্জ, বীরগঞ্জ, নবাবগঞ্জ ও ঘোড়াঘাটের আম লিচুর বাগানগুলো। এতে লোকসানের আশঙ্কায় রয়েছেন কৃষক ও বাগান মালিকরা।

-- বিজ্ঞাপন --

কৃষি বিভাগের তথ্যমতে, দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলায় ৫ হাজার ৬৮০ হেক্টর জমিতে লিচু ও ৫ হাজার ৯১০ হেক্টর জমিতে আম বাগানের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। শিলাবৃষ্টির কারণে ঠিক কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তার সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া না গেলেও বৃষ্টির পর ছত্রাকের আক্রমণ থেকে বাঁচতে কিটনাশক ছিটানোর কথা জানানো হয়েছে।

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার কৃষক ও আম লিচুর বাগানমালিক হাসেম আলী জানান, বাগানগুলোতে আম লিচুর গুটি বেড়ে ওঠা শুরু হয়েছে। এ সময় শীলাবৃষ্টি আম লিচুর ব্যাপক ক্ষতি করবে। যদিও আঘাত এখনো দৃশ্যমান হয়নি। মৌসুমের শুরুতে মুকুল ও পরে গুটি দেখে বাগান মালিক এবং চাষিরা বেশ লাভের আশা করেছিলেন। কিন্তু শিলাবৃষ্টির কারণে আম ও লিচুর গুটি ঝরে যাবে।

-- বিজ্ঞাপন --

বোচাগঞ্জ উপজেলার ১নং নাফানগর ইউনিয়নের তেনা গ্রামের আম, লিচু ও তরমুজ চাষি জাকির হোসেন জানান, রোববারের শিলাবৃষ্টিতে তার ৬ হাজার আমগাছ ও ৩শ লিচুর গুটি ঝরে পড়েছে। তরমুজ নষ্ট হয়ে গেছে। পরে আরও আম লিচুর গুটি ঝরে পড়বে।

বোচাগঞ্জ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা জানান, শিলাবৃষ্টিতে আম লিচুর কী পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা এখনো দৃশ্যমান নয়। শিলার আঘাতে যে আম লিচুগুলো আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে তা কিছুদিন পর দৃশ্যমান হবে এবং ঝরে পড়বে। তবে যেসব এলাকায় শিলাবৃষ্টি হয়েছে সেসব এলাকায় আম লিচুর ১০ শতাংশ উৎপাদন হ্রাস পেতে পারে।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,629FollowersFollow
583SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles