31.4 C
Rangpur City
Monday, September 26, 2022
Royalti ad

লালমনিরহাটে পুলিশ হেফাজতে শ্রমিকের মৃত্যু, প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ

-- বিজ্ঞাপন --

লালমনিরহাটে পুলিশ হেফাজতে রবিউল ইসলাম (২৫) নামে এক পোশাক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) মধ্যরাতে লালমনিরহাট-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন এলাকাবাসী।

মৃত রবিউল ইসলাম খান সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের কাজিচওড়া গ্রামের দুলাল খানের ছেলে।

-- বিজ্ঞাপন --

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, লালমনিরহাটের হারাটি ইউনিয়নের হিরামানিক এলাকায় বৈশাখ উপলক্ষ্যে মেলা চলছিল। সেখানে বসে জুয়ার আসর। খবর পেয়ে রাত আনুমানিক ১টার দিকে সদর থানার পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়ে ধাওয়া করে রবিউল ইসলাম খানসহ (২৫) দুজনকে আটক করে।

এ সময় রবিউল জুয়া খেলেননি দাবি করে পুলিশ ভ্যানে উঠতে আপত্তি জানালে পুলিশের সঙ্গে তার কথাকাটাকাটি হয়। কিন্তু পুলিশ মারধর করে একপর্যায়ে তাকে ভ্যানে তুলে নিয়ে যায়।

-- বিজ্ঞাপন --

এরপরই রবিউল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়লে রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে পুলিশ তাকে চিকিৎসার জন্য লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের জরুরি বিভাগে চিকিৎসা চলাকালীন তিনি মারা যান।

পুলিশের ভাষ্য, রবিউল পথিমধ্যে অসুস্থ হয়ে যান। পরে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দায়িত্বরত চিকিৎসকরা রবিউলকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। তাকে রংপুর পাঠানোর প্রস্তুতিকালে সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে তিনি মারা যান।

-- বিজ্ঞাপন --

এদিকে রবিউলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রাত ৩টার দিকে মহেন্দ্রনগর বাজারে লালমনিরহাট-রংপুর মহাসড়ক অবরোধ করে এলাকাবাসী। তারা রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে অভিযুক্ত সদর থানার উপ-পরিদর্শক হালিমের শাস্তি দাবি করে বিক্ষোভ করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছালে পুলিশ ভ্যানে হামলা ও ভাঙচুর করেন তারা।

পুলিশ ভ্যানে হামলা ও ভাঙচুর

রবিউলের পরিবার ও স্থানীয়দের দাবি, এক সপ্তাহে আগে রবিউল বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন। মেলার খবর পেয়ে বেড়াতে যান সেখানে। রবিউল জুয়া খেলেননি, তাই পুলিশ ভ্যানে উঠতে রাজি হচ্ছিলেন না। এ জন্য পুলিশ তাকে মারধর করে ভ্যানে তুলে নিয়ে যায়। পুলিশের লাথিতে অণ্ডকোষে আঘাতপ্রাপ্ত হন তিনি। কিন্তু দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা এতে পাত্তা না দিয়ে বলেন, রবিউল অভিনয় করছেন।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহা আলম বলেন, আমি ঘটনাস্থলে আছি। রবিউল কীভাবে মারা গেছেন চিকিৎসকরা বলতে পাবেন। তাই তাদের কাছে খোঁজ-খবর নিন। আমি এ বিষয় বলতে চাচ্ছি না।

লালমনিরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম বলেন, জুয়া খেলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করে। থানায় আসার পথে রবিউল অসুস্থ অনুভব করলে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রংপুর মেডিকেলে নেয়ার প্রস্তুতিকালে তার মৃত্যু হয়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) স্ত্রী হত্যার অভিযোগে হিমাংশু বর্মণ (৩৬) নামে একজনকে আটক করে হাতীবান্ধা থানা পুলিশ। পরে পুলিশের হেফাজতে তিনি মারা যান। এ ঘটনার প্রতিবেদন জমা দিতে তদন্ত কমিটিকে এক সপ্তাহের সময় দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখনও প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়নি।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,629FollowersFollow
583SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles