21.7 C
Rangpur City
Tuesday, November 29, 2022

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে গলায় ফাঁস দিয়ে হাসপাতালেই চিকিৎসকের আত্মহত্যা

-- বিজ্ঞাপন --

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে গলায় ফাঁস দেওয়া অবস্থায় রোকেয়া বেগম ডেইজি (২৭) নামে এক চিকিৎসকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) বিকেলে উপজেলার দলার দর্গা মেমোরিয়াল হাসপাতালের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষ থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃত ডা. রোকেয়া খাতুন দিনাজপুরে ফুলবাড়ী উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের সিরাজের মেয়ে।

-- বিজ্ঞাপন --

নবাবগঞ্জ থানা পুলিশের উপপরিদর্শক ও তদন্ত কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান আক্তার জানান, মঙ্গলবার বিকেলে মোবাইলের মাধ্যমে থানায় সংবাদ আসে উপজেলার দলার দর্গা মেমোরিয়াল হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় এক চিকিৎসক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, তারা স্বামী-স্ত্রী দুজনই চিকিৎসক। রোকেয়া বেগম ডেইজি দলার দর্গা মেমোরিয়াল হাসপাতালে কর্মরত ছিলেন। তিনি ওই হাসপাতালের কোয়ার্টারে থাকতেন এবং তার স্বামী চিকিৎসক আরিফুজ্জামান আরিফ চিরিরবন্দরে কর্মরত। তার স্বামী গতকাল চিরিরবন্দর থেকে আসেন। রাতে তাদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হলে রোকেয়া বেগম মঙ্গলবার বিকেলে তার কক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

-- বিজ্ঞাপন --

নবাবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ এ তথ‌্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারী চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার করেন। মরদেহ তাদের শয়নকক্ষের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গামছা দিয়ে ঝুলানো ছিল। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট এলে জানা যাবে, এটা আত্মহত্যা নাকি হত্যা।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,610FollowersFollow
752SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles