20.2 C
Rangpur City
Thursday, December 1, 2022

ঠাকুরগাঁওয়ে নির্বাচনী সহিংসতার ঘটনায় ৩ মামলা, আসামি-৬৫০

-- বিজ্ঞাপন --

ঠাকুরগাঁওয়ের রানীশংকৈল উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতার ঘটনায় থানায় পৃথক ৩ টি মামলা হয়েছে। এতে অজ্ঞাতনামা ৬৫০ থেকে ৮০০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

উপজেলার বাচোর ইউনিয়নের ভাংবাড়ি ভি এফ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে দায়িত্বরত প্রিসাইডিং কর্মকর্তা খতিবর রহমান ও থানার দুই সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) বিলাশ চন্দ্র রায় ও আহাদুজ্জামান বাদী হয়ে মামলা করেন।

-- বিজ্ঞাপন --

থানা–পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মীরডাঙ্গী আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসিন্দা মো. বাদশাহর মেয়ে সুরাইয়া মায়ের কোলে থাকা অবস্থায় মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। এ ঘটনায় ভাংবাড়ি ভিএফ নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা খতিবর রহমান একটি মামলা করেছেন। এতে অজ্ঞাতনামা ৩০০-৩৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

ওই দিন রাতে ভোট গ্রহণের দায়িত্ব শেষে ফেরার সময় মীরডাঙ্গী বাজারের ১০০ গজ দক্ষিণে পুলিশের ওপর হামলা হয়। এ ঘটনায় ঠাকুরগাঁও সদর থানার এএসআই বিলাশ চন্দ্র রায় একটি মামলা করেন। মামলায় ১৫০-২০০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়েছে।

-- বিজ্ঞাপন --

শিশু সুরাইয়ার মৃত্যুর ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে লাশ নিয়ে বিক্ষোভ করেন স্থানীয় লোকজন। ওই সময় তারা রাণীশংকৈল আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করে এবং থানা ঘোরাও করে রাখেন। পুলিশ কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনায় রাণীশংকৈল থানার এএসআই আহাদুজ্জামান বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। ওই মামলায় অজ্ঞাতনামা ২০০-২৫০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

প্রিসাইডিং কর্মকর্তা খতিবর রহমান বলেন, ইউপি সদস্য পদে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকেরা তাঁদের ওপর হামলা করেছিলেন। তবে তাঁদের পরিচয় জানা যায়নি বলে এজাহারে কারও নামোল্লেখ করা হয়নি।

-- বিজ্ঞাপন --

মামলার কথা শুনে অনেকেই গ্রেপ্তার আতঙ্কে এলাকা ছেড়েছেন। হাতে গোনা কয়েকটি দোকান ছাড়া গ্রামের প্রায় সব দোকান বন্ধ রয়েছে। নির্বাচনে পরাজিত ইউপি সদস্য প্রার্থী খালেদুর রহমানের মুঠোফোন বন্ধ থাকায় তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি। তবে তাঁর প্রতিবেশী এক নারী জানিয়েছেন, তাঁরা এলাকা ছেড়ে চলে গেছেন। তবে কোথায় গেছেন, তা তাঁরা জানাননি।

মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে রাণীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জাহিদ ইকবাল বলেন, ৩ টি মামলা করা হয়েছে। এতে অজ্ঞাতনামা ছয় শতাধিক মানুষকে আসামি করা হয়েছে। আর আমি বলে দিয়েছি কোনো সাধারণ মানুষ এতে হয়রানি হবে না। অতএব কেউ ভয় পাবেন না। শুধুমাত্র দোষীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হবে।

পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ভোটের দিন ৩ টি পৃথক ঘটনায় তিনটি মামলা হয়েছে। এতে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা একটি ও আমাদের পুলিশ সদস্য দুজন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। এসব হামলায় জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,609FollowersFollow
756SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles