20.1 C
Rangpur City
Wednesday, February 8, 2023

‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে র‌্যাবের হাত থেকে ছাত্রলীগ নেতাকে কেড়ে নিলো অনুসারীরা

-- বিজ্ঞাপন --

বগুড়ায় বিক্ষোভ মিছিল থেকে আব্দুর রউফ নামে ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত নেতাকে আটকের পর অনুসারীরা র‌্যাব সদস্যদের কাছ থেকে তাকে ‘কেড়ে’ নিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হত্যা মামলার আসামি ছাত্রলীগ নেতাকে কেড়ে নেয়ার সময় ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দেয় তার অনুসারীরা।

-- বিজ্ঞাপন --

মঙ্গলবার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে শহরের জিরো পয়েন্ট সাতমাথা সংলগ্ন মুজিব মঞ্চের সামনে ওই ঘটনা ঘটে। এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও চিত্র চ্যানেল24 অনলাইনের হাতেও এসেছে। তবে র‌্যাব-১২ বগুড়ার কোম্পানি কমান্ডার তৌহিদুল মবিন খান কেড়ে নেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘তথ্যগত ভুলের কারণে রউফ নামে একজনতে আটক করা হয়েছিল। পরে তথ্য যাচাইয়ের পর তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।’

-- বিজ্ঞাপন --

আব্দুর রউফ বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ছাত্রলীগে নেতৃত্ব নিয়ে বিরোধের জের ধরে ২০২১ সালের ১১ মার্চ শহরের সাতমাথায় তৎকালীন জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাকবীর ইসলাম খানকে ছুরিকাঘাত করা হয়। ঘটনার ৫ দিনের মাথায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাকবীরের মৃত্যু হয়। তবে মৃত্যুর পূর্বে এক ভিডিও বার্তায় তাকবীর তাকে ছুরিকাঘাত করার জন্য ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রউফকে দায়ী করেন।

-- বিজ্ঞাপন --

তাকবীরের মৃত্যুর পর পরই রউফকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়। ওই ঘটনায় নিহত তাকবীরের মা আফরোজা ইসলাম বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতা রউফকে প্রধান আসামি করে ৪২ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলার পর পরই রউফ আগাম জামিন নেন। পরবর্তীতে ২০২১ সালের ১৯ জুলাই তিনি আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠান। প্রায় ১১ মাস কারাগারে থাকার পর চলতি বছরের ১৫ জুন তিনি জামিনে বেড়িয়ে আসেন। এরপর তিনি স্বেচ্ছাসেবক লীগে নেতাকর্মীদের সঙ্গে যুক্ত হন।গত ৭ নভেম্বর ছাত্রলীগের নবগঠিত জেলা কমিটি বাতিলের দাবিতে আন্দোলনরত পদবঞ্চিতরা ১৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সংগঠনের জেলা কার্যালয় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এর প্রতিবাদে ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির নেতাকর্মীরা মঙ্গলবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শহরের জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন মুজিব মঞ্চের সামনে থেকে বের করা মিছিলে ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির নেতাকর্মীদের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতাকর্মীদেরও অংশ নিতে দেখা যায়। তাদের সঙ্গে বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রউফও অংশ নেয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার মুজিব মঞ্চের কাছে আসার পরপরই সাদা পোষাকে কর্তব্যরত র‌্যাব সদস্যরা আব্দুর রউফকে আটক করে। ওই সময় রউফের কয়েকজন অনুসারী তাকে র‌্যাবের কাছ থেকে টান দিয়ে মুক্ত করে নিয়ে আসে। এ সময় সেখানে কয়েকজন পুলিশ সদস্যও উপস্থিত ছিলেন।পরে জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটির সভাপতি সজীব সাহা এবং সাধারণ সম্পাদক আল মাহিদুল ইসলাম জয় ঘটনাস্থলে যান। সজীব সাহা বলেন, ‘মিছিল শেষে মুজিব মঞ্চের অদূরে ভিড় দেখে এগিয়ে যাই। পরে দেখি সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক।’ বিষয়টি নিয়ে ওই সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত পুলিশের কেউ কোনো কথা বলতে রাজি হননি।জানতে চাইলে র‌্যাব-১২ বগুড়ার কোম্পানির কমান্ডার তৌহিদুল মবিন খান বলেন, ‘তথ্যগত ভুলের কারণে আব্দুর রউফ নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছিল। তবে প্রাপ্ত তথ্যের সঙ্গে তার কোনো মিল না পাওয়ায় পরে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এখানে কেড়ে নেয়ার কোন ঘটনা ঘটেনি।’

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,600FollowersFollow
874SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles