20.2 C
Rangpur City
Thursday, December 1, 2022

গাইবান্ধায় পৌঁছেছে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার মরদেহ

-- বিজ্ঞাপন --

গাইবান্ধার সাঘাটায় পৌঁছেছে ডেপুটি স্পিকার ও গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়ার মরদেহ। সোমবার (২৫ জুলাই) দুপুর দেড়টায় সশস্ত্র বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার তার মরদেহ নিয়ে বোনারপাড়া হেলেনচা গ্রামের ভেলাকোপা বিলে অবতরণ করে।

সেখান থেকে অ্যাম্বুলেন্সযোগে ডেপুটি স্পিকারের মরদেহ ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নেওয়া হচ্ছে। এরপর সর্বস্তরের মানুষ শ্রদ্ধা জানাবেন। একই মাঠে বিকেল ৩টায় দ্বিতীয় জানাজা শেষে মরদেহ নেওয়া হবে নিজ বাড়ি গটিয়া গ্রামে। সেখানে বিকেল সাড়ে ৫টায় আরেকটি জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এর পরপরই রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

-- বিজ্ঞাপন --

ফজলে রাব্বীর জানাজা ও দাফন প্রক্রিয়া সম্পন্নে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তার ছোট ভাই মো. ফরহাদ রাব্বী ও মেয়ে ফারজানা রাব্বী বুবলি।

এছাড়া ফজলে রাব্বীর মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদনসহ দুই দফা জানাজা নামাজ ও সুষ্ঠু দাফন সম্পন্ন করতে জেলা প্রশাসন ও পুলিশের পক্ষ থেকেও নেওয়া হয়েছে সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

-- বিজ্ঞাপন --

এর আগে সোমবার সকাল পৌনে ৯টায় যুক্তরাষ্ট্র থেকে একটি ফ্লাইটে ফজলে রাব্বী মিয়ার মরদেহ দেশে পৌঁছায়। এরপর মরদেহ শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হয় জাতীয় ঈদগাহ প্রাঙ্গণে। সেখানে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাজায় ইমামতি করেন সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের ইমাম আবু সালেহ মো. সলিমউল্লাহ।

-- বিজ্ঞাপন --

জানাজায় অংশগ্রহণ করেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, মৎস্য ও পশু সম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, মন্ত্রী পরিষদের সদস্যরা, আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা, আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা।

এর আগে, আজ সকাল ৮ টা ৩১ মিনিটে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ইকে-৫৮২ ফ্লাইটে তার মরদেহ হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছায়।

এরপর তার মরদেহ নেওয়া হবে গাইবান্ধায়। গাইবান্ধার সাঘাটার ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে দুই ছেলের কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন ফজলে রাব্বী মিয়া।

শুক্রবার (২২ জুলাই) দিবাগত রাত ২টার দিকে (নিউইয়র্ক সময় বিকেল ৪টা) যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ফজলে রাব্বী মিয়া। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ফজলে রাব্বী মিয়া ১৯৪৬ সালের ১৫ এপ্রিল গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার গটিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম ফয়জার রহমান এবং মায়ের নাম হামিদুন নেছা।

পেশায় আইনজীবী ফজলে রাব্বী মিয়া গাইবান্ধা-৫ আসনের সাতবারের সংসদ সদস্য ছিলেন। এছাড়া তিনি জাতীয় সংসদের পরপর দুইবারের ডেপুটি স্পিকারের দায়িত্ব পালন করেন।

মুক্তিযুদ্ধে ১১ নং সেক্টরে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন তিনি। বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও সফল জনপ্রতিনিধি ফজলে রাব্বীর মৃত্যুতে শোক বিরাজ করছে সাঘাটা-ফুলছড়িসহ গোটা গাইবান্ধায়।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,609FollowersFollow
756SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles