30.6 C
Rangpur City
Monday, September 26, 2022
Royalti ad

গাইবান্ধার সাঘাটায় স্কুলমাঠে খেলতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ছাত্রের মৃত্যু

-- বিজ্ঞাপন --

স্কুলমাঠে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করতে নিষেধ করেছিলেন প্রধান শিক্ষক। কিন্তু শোনেনি তারা। ফলে স্কুলমাঠ ও ভবনের চারপাশে দেওয়া হয় বিদ্যুতের তার। খেলতে গিয়ে সেই তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নীরব ইসলাম (১০) নামে ওই বিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (১৪ মে) সন্ধ্যায় গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া এলাকার কালপানি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

-- বিজ্ঞাপন --

নীরব ইসলাম বোনারপাড়া ইউনিয়নের জহুরুল ইসলামের ছেলে। সে ওই স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শী ও প্রতিবেশীরা জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল বাকি কয়েকদিন ধরে স্কুলমাঠে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা বন্ধ করে দেন। কিন্তু তারপরেও স্থানীয় শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা করে আসছিল। পরে প্রধান শিক্ষকের নির্দেশে স্কুলের দপ্তরি মো. নিলু মিয়া ভবন ও মাঠের চারপাশে বিদ্যুতের তার দিয়ে রাখেন। বিকেলে মাঠে খেলাধুলা করার সময় সেই তারে জড়িয়ে নীরব বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। কিছু সময় পর ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়।

-- বিজ্ঞাপন --

স্থানীয় বাসিন্দা কাসেম উদ্দিন জানান, ওই বারান্দার টিনের চালের ওপর বৈদ্যুতিক সংযোগ আনেক আগে থেকেই লিকেজ ছিল। ফলে মাস খানেক আগেও এক শিক্ষার্থী আহত হয়। কিন্তু কর্তৃপক্ষ এটির কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।

নিহত নীরবের বাবা জহুরুল ইসলাম জানান, স্কুল কর্তৃপক্ষের অবহেলার আমার ছেলের মৃত্যু হয়েছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

-- বিজ্ঞাপন --

স্কুলটির দপ্তরি মিলু মিয়া বলেন, গতকাল ৪টার সময় আমি স্কুল বন্ধ করে বাড়ি ফিরি। এরপরে কী ঘটেছে আমি কিভাবে বলবো?

এ বিষয়ে বোনারপাড়া ইউনিয়নের স্থানীয় ইউপি সদস্য আফতাব আলী সরকার বলেন, শিক্ষকের এমন কাণ্ড মেনে নেওয়া যায় না। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।

স্থানীয় বোনারপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাছিরুল আলম স্বপন বলেন, স্কুলছাত্রের মৃত্যু ঘটনাটি মর্মান্তিক। এটি আসলে কিভাবে ঘটলো ঘটনাস্থলে না গিয়ে বলতে পারবো না।

বৈদ্যুতিক সংযোগ দিয়ে শিশুদের খেলাধুলা বন্ধ করার বিষয়টি অস্বীকার করে স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল বাকি বলেন, আমরা স্কুল বন্ধ করে বাড়ি আসার পর সন্ধ্যার দিকে ওই স্কুলছাত্র মারা যায়। স্কুলমাঠে কোনো বৈদ্যুতিক সংযোগ দেওয়া ছিল না। হয়তো শিশুটি বারান্দার টিনের চালে উঠে মেইন লাইনে হাত দেওয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

সাঘাটা থানার বোনারপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ রাকিব হাসান বলেন, এ ঘটনায় শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেব।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,629FollowersFollow
583SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles