30.6 C
Rangpur City
Monday, September 26, 2022
Royalti ad

কালবৈশাখীর ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ বীর মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতির সামাজিক প্রতিষ্ঠান মেনহাজ সংঘ

-- বিজ্ঞাপন --

রংপুরের বদরগঞ্জে কালবৈশাখী ঝড়ে গত রবিবার রাতে লণ্ডভন্ড হয়েছে ঘর বাড়ি। ঝড়ের কবলে পৌরশহরের থানা রোড এলাকায় অর্ধশত বছরের পুরনো রংপুর বদরগঞ্জের একমাত্র শহীদ বীর মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতির সামাজিক প্রতিষ্ঠান শহীদ মেনহাজ সংঘ ও প্রাণকৃষ্ণ পাঠাগার ক্লাবটি ভেঙে পড়েছে।

রবিবার রাতে কালবৈশাখী ঝড়ে গাছ পড়ে ক্লাবটির একটি অংশ ভেঙে পড়ে যায়। এছাড়াও গাছ পড়ে একটি রিকশা নষ্ট হয়ে যায়। বদরগঞ্জ রংপুর প্রধান সড়কের এপর গাছ পড়ে প্রতিবন্দকতা সৃষ্টি হয়। এতে কিছু সময়ের জন্য যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়। রাত ১২টায় শুরু হওয়া কালবৈশাখী ঝড় ৪০ মিনিট ধরে এই তাণ্ডব চালায়। কালবৈশাখী ঝড় ও বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশকিছু ঘরবাড়ি দোকানপাট। নষ্ট হয়ে গেছে বিভিন্ন ফসল ও শাকসবজির ক্ষেত।

-- বিজ্ঞাপন --

স্থানীয় সুত্র থেকে জানা যায়, বদরগঞ্জের থানা রোডে অবস্থিত শহীদ মেনহাজ সংঘ ও প্রাণকৃষ্ণ পাঠাগার ১৯৭২ সালের ৩১ জুলাই প্রতিষ্ঠিত হয়। এর সাথে জড়িয়ে আছে মহান বীর মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। একাত্তরের দু’জন মহান শহীদের নাম। সময়ের পরিক্রমায় শহীদ মেনহাজ সংঘ ও প্রাণকৃষ্ণ পাঠাগার মুমূর্ষু অবস্থা নিয়ে কোনো রকমে দাঁড়িয়ে ছিল।

বদরগঞ্জের রামনাথপুরের ঝাড়ুয়ার বিল বধ্যভূমিতে শুধুমাত্র বাঙালি হওয়ার অপরাধে সেদিন নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন সহশ্রাধিক মানুষ। তাদের মধ্যে দুজন হলেন মেনহাজুল ইসলাম এবং প্রাণকৃষ্ণ রায়। সময়ের পরিক্রমায় অনেকের নাম স্মৃতি থেকে মুছে গেছে কিন্তু মেনহাজুল ইসলাম এবং প্রাণকৃষ্ণ রায় ‘শহীদ মেনহাজ সংঘ ও প্রাণকৃষ্ণ পাঠাগার’ নামের আবরণে বেঁচে আছে যুগ যুগ ধরে।

-- বিজ্ঞাপন --

মেনহাজুল ইসলামের বাড়ি রামনাথপুর ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর বানিয়াপাড়ায়। তিনি পেশায় শিক্ষক ছিলেন। প্রাণকৃষ্ণ রায়ও পেশায় শিক্ষক ছিলেন। তার বাড়ি বুজরুক হাজীপুর কামারপাড়ায়।

প্রাণকৃষ্ণ রায়ের প্রতিবেশি রাজেন্দ্রনাথ সরকার (৯০) বলেন, ‘প্রাণকৃষ্ণ রায় এলাকায় পরান মাস্টার নামে পরিচিত। একাত্তরে ঝাড়–য়ার বিলে নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার এই দু’জন শিক্ষকের নামের স্মৃতি নিয়ে ‘শহীদ মেনহাজ সংঘ ও প্রাণকৃষ্ণ পাঠাগার।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,629FollowersFollow
583SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles