31.4 C
Rangpur City
Wednesday, August 10, 2022
Royalti ad

উত্তরাঞ্চলে তীব্র তাপদাহ, রংপুর মেডিকেলে ২৪ ঘণ্টায় ১৮ মৃত্যু

-- বিজ্ঞাপন --

আষাঢ়-শ্রাবণ এই দুমাস বর্ষাকাল। বছরের প্রায় ৮০ শতাংশ বৃষ্টিই হয় এ ঋতুতে। তবে আবহাওয়ার পরিবর্তন আর প্রকৃতির বিরূপ আচরণই জানিয়ে দিচ্ছে ঋতুচক্র বর্ষপুঞ্জিতে আটকা পড়েছে। এখন ভরা বর্ষায় কড়া রোদে লাপাত্তা ঝড়-বৃষ্টি।

উত্তরাঞ্চলে তীব্র তাপদাহে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। জ্বর-সর্দিসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে হিটস্ট্রোকসহ বিভিন্ন রোগে ১৮ জন মারা গেছেন বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

-- বিজ্ঞাপন --

রমেক হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, উত্তরাঞ্চলে তীব্র তাপদাহ শুরু হওয়ার পর থেকে ১ হাজার শয্যার এ হাসপাতালে রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে। বর্তমানে এখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১ হাজার ৫২০ জন রোগী।

এর মধ্যে মেডিসিন বিভাগের ৩টি ওয়ার্ডে প্রায় সাড়ে ৩০০ এবং শিশু বিভাগে প্রায় ২০০ রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। বেশির ভাগ রোগী জ্বর, সর্দি, কাশিসহ তাপদাহের কারণে নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন বলে চিকিৎসকরা জানান।

-- বিজ্ঞাপন --

রংপুর আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রংপুর বিভাগে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে নীলফামারীর সৈয়দপুরে ৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এ ছাড়া রংপুরে ৩৬ দশমিক ৮, দিনাজপুরে ৩৬ দশমিক ২, পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৩৫ দশমিক ৭, নীলফামারীর ডিমলায় ৩৬ দশমিক ২ এবং কুড়িগ্রামের রাজারহাটে ৩৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা ছিল।

-- বিজ্ঞাপন --

রমেক হাসপাতালের সহকারী পরিচালক মোস্তফা জামান চৌধুরী বলেন, উত্তরাঞ্চলে তীব্র তাপদাহ বিরাজ করায় মৌসুমি জ্বর, সর্দিসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে রোগী ভর্তি হচ্ছেন। স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে বর্তমানে রোগীর চাপ একটু বেশি। এর মধ্যে মেডিসিন ও শিশু বিভাগে চাপ বেশি। তবে তাদের চিকিৎসক ও নার্সরা রোগীদের চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছেন। সব রোগীকে বেড দেওয়া না গেলেও চিকিৎসাসেবা প্রদান নিয়ে কোনো সমস্যা নেই।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,637FollowersFollow
495SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles