27 C
Rangpur City
Wednesday, May 25, 2022
Royalti ad

ইউক্রেনের ভূখণ্ডে যেসব মূল্যবান প্রাকৃতিক সম্পদ রয়েছে

-- বিজ্ঞাপন --Royalti ad

যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ইউক্রেনের অতিমাত্রায় দহরম মহরমে প্রমাদ গুনেছিল রাশিয়া। মস্কোর নাকের ডগায় বসে কিয়েভের পশ্চিমা প্রীতি শুধু নিরাপত্তাই নয়, ক্রেমলিনের বৈশ্বিক অবস্থানও দুর্বল করছিল। তাই ইউক্রেনে হামলার চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিতে কয়েক মাস ধরে সীমান্তে সামরিক শক্তি বাড়াতে থাকে মস্কো। যুক্তরাষ্ট্র অবশ্য এ বিষয়ে বারবার সতর্ক বার্তা দিলেও পরিস্থিতি শান্ত করতে কাজের কাজ তেমন কিছুই করেনি। উল্টো উসকানিমূলক বিবৃতি আর ইউক্রেনকে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়ে গেছে। বিপদে পড়লে এ সব আশ্বাস কার্যত যে কোনো ফল দেয় না, তা হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলদিমির জেলিনস্কি।

-- বিজ্ঞাপন --

শুধু গম উৎপাদনে শ্রেষ্ঠত্বই নয়, প্রাকৃতিক সম্পদের প্রাচুর্যে ভাসছে ইউক্রেন। যা তাকে সমৃদ্ধ করলেও সাম্রাজ্যবাদী ও আধিপত্যবাদীদের লোভের থাবার বস্তুতে পরিণত করেছে।

প্রাকৃতিক গ্যাস ও তেল

-- বিজ্ঞাপন --

রাশিয়ার এশিয়া অংশ বাদে ইউরোপের দ্বিতীয় বৃহত্তম গ্যাসের মজুত রয়েছে ইউক্রেনে। ইউরোপে সবচেয়ে বেশি নরওয়ের ১.৫৩ ট্রিলিয়ন কিউবিক মিটার গ্যাসের মজুত রয়েছে। এরপর ১.০৯ ট্রিলিয়ন কিউবিক মিটার গ্যাসের মজুত আছে ইউক্রেনে। রাশিয়ার সাথে মিলে ইউরোপের ৫০ শতাংশ গ্যাসের চাহিদা মেটায় ইউক্রেন। নর্ড স্ট্রিম-১ পাইপলাইন দিয়ে রপ্তানি হয় এটি। নর্ড স্ট্রিম-২ নামে আরেকটি পাইপ লাইন নির্মাণ করেছে রাশিয়া। যা চালুর আগেই ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে এর মাধ্যমে গ্যাস আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে জার্মানি। ইউক্রেনের ওপর দিয়েই ইউরোপে গ্যাস রপ্তানি করে রাশিয়া। এছাড়া সাড়ে ১৩ কোটি টন তেল ও ৩৭০ কোটি টন শেল তেলের মজুত রয়েছে ইউক্রেনে।

কয়লা

-- বিজ্ঞাপন --Bicon Icon

কয়লার মজুতে বিশ্বে সপ্তম ও ইউরোপে দ্বিতীয় ইউক্রেন। যার পরিমাণ হতে পারে ১১৫ বিলিয়ন টন। এই কয়লার ৯২ শতাংশের অবস্থান দোনবাসে। যার দুটি অংশ লুহানস্ক ও দোনেৎস্ক। ইউক্রেনে হামলার আগে অঞ্চল দুটিকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেয় রাশিয়া। ইউক্রেনের এই বিপুল কয়লার মজুতের ৩০ শতাংশ রান্নায় ব্যবহৃত কয়লা। বছরে যার উৎপাদন ১০ কোটি টন। বিশেষজ্ঞদের ধারণা, আগামী সাড়ে ৫শ’ বছর এই মজুত দিয়ে চলতে পারবে দেশটি। চীনের কলকারখানা ও ভারতের বিদ্যুৎ উৎপাদনে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এই তালিকায় আছে রাশিয়াও।

লোহা

আকরিক লোহার বিশাল মজুত রয়েছে ইউক্রেনে। আকরিক লোহার রপ্তানিকারকদের তালিকায় বিশ্বে পঞ্চম স্থানে দেশটি। ইউক্রেনের রপ্তানি পণ্যের তালিকায় তৃতীয় হলো আকরিক লোহা।

লিথিয়াম

গাড়ির ব্যাটারির অন্যতম উপাদান লিথিয়াম। তাই বিশ্বজুড়ে অটোমোবাইল কোম্পানিগুলো এ উপাদান সংগ্রহে বিশেষভাবে আগ্রহী থাকে। ইউক্রেনের কিরোভোরাদ, দোবরা ও দোনেৎস্ক অঞ্চলে রয়েছে লিথিয়ামের খনি। তবে এখনো সেখান থেকে লিথিয়াম উত্তোলন শুরু হয়নি। রাশিয়ার হামলার আগে অস্ট্রেলিয়া ও চীনের দুটি কোম্পানি কাজ পেতে দরকষাকষির মধ্যে ছিল।

টাইটানিয়াম

ওজনে হালকা কিন্তু অত্যন্ত শক্ত ধাতু টাইটানিয়াম। মূলত উড়োজাহাজ তৈরিতে ব্যবহার করা হয়। বিশ্বের ২০ শতাংশ টাইটানিয়ামের মজুত রয়েছে ইউক্রেনে। যার প্রধান তিন ক্রেতা চীন, রাশিয়া ও তুরস্ক। খনি থেকে তুলে ক্রেতার চাহিদামতো পণ্য তৈরির কারখানাও রয়েছে ইউক্রেনে।

আকরিক ম্যাঙ্গানিজ

ইউরোপের সবচেয়ে বড় আকরিক ম্যাঙ্গানিজের মজুত রয়েছে ইউক্রেনে। বছরে সাড়ে ৭ লাখ টনের বেশি উত্তোলিত হয়। যার সোয়া লাখ টন রপ্তানি করে থাকে। মজুতের ৬৬ শতাংশই রয়েছে ভেলিকো-তোকমাক্সকোয়ে এলাকায়।

এছাড়া স্টিল, অ্যালুমিনিয়াম, বিটুমিনেরও ভালো মজুত রয়েছে দেশটিতে। বিশেষ করে ইতালি, রাশিয়া, তুরস্কসহ বিভিন্ন দেশে বিপুল পরিমাণ স্টিল রপ্তানি করে ইউক্রেন।

প্রাকৃতিক সম্পদের এত প্রাচুর্যের পরও দুর্নীতির কারণে তেমন একটা এগুতে পারেনি দেশটি। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের দুর্নীতির ধারণা সূচকে ইউরোপে রাশিয়ার পরই ইউক্রেনের অবস্থান। দুর্নীতি বিরোধী সংস্থা থাকলেও রাজনীতিবিদদের চাপের মুখে তা নখদন্তহীন অবস্থায় রয়ে গেছে।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,665FollowersFollow
402SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles