27.5 C
Rangpur City
Tuesday, November 29, 2022

অবশেষে কাঙ্খিত বৃষ্টির দেখা মিলেছে রংপুরে : আমন চাষিদের মাঝে স্বস্তির নিঃশ্বাস

-- বিজ্ঞাপন --

অব্যাহত তাপদাহের পর অবশেষে রংপুরে দেখা মিলেছে কাক্সিক্ষত বৃষ্টির। প্রকৃতির ওপর নির্ভরশীল আমনের ক্ষেতগুলো পানির জন্য হাহাকার করছিল ঠিক তখনি স্বস্তির বৃষ্টি হলো। শনিবার (২৩ জুলাই) রাত থেকে রোববার (২৪ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত এ বৃষ্টিতে আমন চাষিদের মাঝে স্বস্তির নিঃশ্বাস দেখা দিয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ৭০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে নগরীর তামপাট, বীরভদ্র বালাটারী, খাসবাগ, তপোধন, দর্শনা, কেরানীরহাটসহ বিভিন্ন এলাকায় দেখা গেছে, বৃষ্টির পর থেকে আমন চাষীরা চারা রোপণের জন্য জমি প্রস্তুুতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। কোথাও চাষ চলছে, কোথাও মই দেয়া চলছে। কেউ চারা রোপণ করছেন। এমন চিত্র শুধু রংপুর নগরী নয় জেলার আট উপজেলায় লক্ষ্য করা গেছে।

-- বিজ্ঞাপন --

রংপুর আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় নগরীসহ রংপুর অঞ্চলে বৃষ্টিপাত হয়েছে ৭০ দশমিক ৬ মিলিমিটার। আগামী ২৪ ঘণ্টায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি মৌসুমে রংপুর নগরী ও জেলার আট উপজেলাসহ রংপুর অঞ্চলের ৫ জেলায় প্রায় ৬ লাখ ১৫ হাজার ৬৮৫ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। রোববার (২৪ জুলাই) পর্যন্ত ৫৩ হাজার ৪৩১ হেক্টর জমিতে আমন ধান রোপণ করেছে চাষিরা। বাকি জমিগুলোর চাষিরা এখনো প্রকৃতির ওপর নির্ভর করছে।

-- বিজ্ঞাপন --

কাউনিয়া উপজেলার চর চতুরা এলাকার আব্দুল মমিন ও পল্লীমারীর চর এলাকার ইউনুস আলী জানান, আমন মৌসুম সাধারণত বৃষ্টির ওপর নির্ভরশীল। বৃষ্টি না হলে সেচ দিতে পানি বাবদ প্রতি একরে বাড়তি খরচ হবে দুই থেকে তিন হাজার টাকা। এতে তারা চাষাবাদে ক্ষতির সম্মুখীন হতেন।

পীরগাছা উপজেলার তাম্বুলপুরের শহিদুল ইসলাম, মিঠাপুকুরের লতিবপুর বউ বাজার এলাকার মজনু মন্ডল ও সদরের জানকী ধাপেরহাটের মনজুরুল ইসলামসহ বেশ কয়েকজন চাষি এমন কথা জানান।

-- বিজ্ঞাপন --

নগরীর তামপাট এলাকার চাষি নুর ইসলাম ও আশরাফুল আলম সহ বেশ কয়েকজন জানান, আমন চাষ মূলত প্রকৃতি নির্ভর। এবার বৃষ্টিপাত না হওয়ার কারণে আমন ধান রোপণ করার পরে পানি নিয়ে দুশ্চিন্তায় ছিলেন তারা। সেচের মাধ্যমে ধান চাষের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তবে শনিবার রাত থেকে বৃষ্টি হওয়ার কারণে তাদের মতো হাজারোও চাষির মধ্যে কিছুটা স্বস্তি ফিরেছে।

শুধু তারা নয় রংপুর অঞ্চলের কয়েকলাখ আমন চাষি পানির অভাবে দিশেহারা হয়ে পড়েছিল। এমন সময় কাক্সিক্ষত বৃষ্টির দেখা পেয়ে এসব চাষির মাঝে কিছুটা স্বস্তি ফিরে এসেছে। দুশ্চিন্তাও কমেছে। তারা এখন আমন চারা রোপণে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন।

এ বিষয়ে রংপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ওবায়দুর রহমান মণ্ডল বলেন, বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। ফলে আমন চাষির মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

-- বিজ্ঞাপন --

Related Articles

Stay Connected

82,917FansLike
1,611FollowersFollow
750SubscribersSubscribe
-- বিজ্ঞাপন --

Latest Articles